লক্ষ্মীপুর জেলা

লক্ষ্মীপুর যাই ১৫ আগস্ট, ২০১৯। কোরবানি ঈদের সম্ভবত দ্বিতীয় বা তৃতীয় দিন ছিলো। রাত ১০টায় হুট করে মনে হলো কোথাও যেতে হবে, বের হয়ে পড়লাম।

আমার বাসার কাছে মিরপুর-১ থেকে রাতের বেলা লক্ষ্মীপুরের বাস ছাড়ে। রাত ১১.৩০ টায় রয়েল কোচে চড়ে লক্ষ্মীপুরে রওনা হলাম। কুমিল্লায় ব্রেকে চিকেন খিচুড়ী আর দুধ চা খেলাম ফ্রি(টিকেটের সাথে খাবার ছিলো)। খাবারটা মজার ছিলো।

ভোর সকালে লক্ষ্মীপুর নেমে কামানখোলা জমিদার বাড়ি আর দালাল বাজার জমিদার বাড়ি দেখে ফোন দিলাম ভার্সিটি বন্ধু Sakib Hasan কে।

রায়পুরায় ওর বাসায় ভরপেটে খেয়ে আর পুকুরের পানিতে গোসল করে দুপুরের কিছু সময় পর বিদায় নিলাম।

মজু চৌধুরীর হাটে গিয়ে দেখা পেলাম ‘বে ক্রুজ’ জাহাজের। ২০১৩ সালে এই জাহাজে করেই সেন্টমার্টিন থেকে কক্সবাজার গিয়েছিলাম। সে এক রোমাঞ্চকর জার্নি ছিলো।

মজু চৌধুরীর হাট থেকে বাইক ভাড়া করে রওনা হলাম মতির হাটের উদ্দেশ্যে। এবং সেদিনের শ্রেষ্ঠ জায়গা ছিলো মতির হাট। বেড়িবাঁধের উপর দিয়ে ভাঙাচোরা রাস্তার জার্নিটাও কষ্টকর হলেও একপাশে উত্তাল মেঘনা নদীকে রেখে বেশ উপভোগ্য ছিলো।

মতিরহাটে পৌঁছাই বিকালবেলা। জায়গাটা আমার এত পছন্দ হয় তখনই ঠিক করে ফেলি প্রিয় মানুষকে নিয়ে এখানে আসতে হবে। এত সৌন্দর্য একা দেখা ঠিক না।

মতিরহাট থেকে ভেঙ্গে ভেঙ্গে সিএনজি, বাসে করে আবার লক্ষ্মীপুর চলে আসি এবং বিপদে পড়ি। ঈদের সময় হওয়ায় ঢাকায় যাওয়ার বাসের টিকেটের সংকট। অনেকটা সময় দাঁড়িয়ে থাকার পর রয়েল কোচের এক বাসে ইঞ্জিনের উপর সিট মেলে। রাতের বেলা এসি বাসে জ্যাম ছাড়া চলে যাবো এই ভরসায় উঠে পড়ি। রাত ৯.১০ মিনিটে বাস ছাড়ে, বাসায় এসে পৌঁছাই ৩.০৫ মিনিটে। তেমন কোন কষ্টই হয় নি। সমাপ্তি ঘটে আরেকটি সোলো ট্রিপের।

লক্ষ্মীপুর ঘুরে দেখার মত যত স্থান,

১। দালাল বাজার জমিদার বাড়ি
২। কামানখোলা জমিদার বাড়ী
৩। জ্বীনের মসজিদ
৪। চর আলেকজান্ডার
৫। মজু চৌধুরীর হাট
৬। মতিরহাট
৭। নারিকেল ও সুপারির বাগান

৬৪ জেলার তথ্য নিয়ে ই-বুক লেখার কাজ শুরু করেছি ইনশাআল্লাহ। ই-বুকের সব আপডেট পাবেন অদেখা বাংলার খোঁজে ফেসবুক পেজে। লাইক দিয়ে রাখতে পারেন।

ই-বুক পাবলিশ হওয়ার তথ্য ই-মেইল বা মোবাইলে সবার আগে জানতে গুগল ফর্ম ফিলাপ করে রাখতে পারেন, গুগল ফর্ম লিংক

বাংলাদেশের দর্শনীয় স্থানগুলোর ছবি নিয়ে একটি ইন্সটাগ্রাম প্রোফাইল সাজাচ্ছি। ফলো করতে পারেন, odbangla

বিশেষ দ্রষ্টব্য: উল্লেখ করা স্থান ব্যাতীত আরো কোন স্থান সম্পর্কে যদি কারো জানা থাকে তাহলে কমেন্টে জানাবেন। আমি পোস্ট যোগ করে দিবো।

আপনার মতামত জানান
SHARE