রক্ত দিন, জীবন বাঁচান

২০১২ সালে বন্ধুর সাথে রক্তদান করতে গিয়ে প্রথম রক্তদানের সূচনা হয়। সেবার হঠাৎ করে রক্ত দিলেও ধারাবাহিকভাবে রক্তদান করা শুরু করি ২০১৪ সালের জুন মাস থেকে। আলহামদুলিল্লাহ তারপর থেকে এখন পর্যন্ত সুস্থ থাকলে প্রতি চার মাস পর পর সেচ্ছায় রক্তদান করে আসছি।

রক্তদানের শুরু থেকে আমি তথ্য সংরক্ষন করি। কবে দিচ্ছে, কাকে দিচ্ছি, কোথায় দিচ্ছি। টুকিটাকি সব তথ্যই আমার কাছে আছে। ভাবলাম সেই তথ্যগুলো নিয়ে একটি আর্টিকেল লিখে ফেলি। যদি আমার এই আর্টিকেল পড়ে একজন মানুষও রক্তদানে উতসাহিত হয় তাহলেই আমি সাথর্ক।

ধীরে ধীরে এইখানে আরো অনেক তথ্য যোগ করার ইচ্ছা আছে। হয়তোবা একটা সিরিজ লেখাও শুরু করতে পারি…

রক্তদানের সব তথ্য ভান্ডার

১ম রক্তদান

তারিখঃ ০৬ আগস্ট, ২০১২ (06.08.2012)
সময়ঃ রাত ৯.৫৫
স্থানঃ হার্ট ফাউন্ডেশন, মিরপুর-২
রোগীঃ ইস্ট ওয়েস্ট ভার্সিটির হিল্লোল ভাইয়ের আন্টি
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ হার্টের সমস্যা
কিভাবে যাওয়া হলোঃ কলেজ বন্ধু রাকিনের সাথে।

সারসংক্ষেপঃ রাকিন আর আমার বাসা মিরপুর হওয়ায় একসাথেই ভার্সিটি থেকে আসছিলাম। হঠাৎ হিল্লোল ভাইয়ের ফোন যে রক্ত লাগবে। রাকিন বললো চল যাই। মিরপুর -২ নাম্বার হার্ট ফাউন্ডেশনে গেলাম। আমার রক্তদানের ইচ্ছা ছিলো না। সেসময় রক্ত দিতে ভয় পেতাম। আরো কয়েক ব্যাগ রক্ত লাগবে বিধায় যখন জানলো আমার রক্তের গ্রুপ এ+ তখন আমাকেও রক্ত দিতে বললো। সবাই সাহস দেওয়ায় জীবনের প্রথম রক্ত দান করা হলো।

২য় রক্তদান

তারিখঃ ১৪ জুন, ২০১৪ (14.06.2014)
সময়ঃ রাত ১০.৩০
স্থানঃ ল্যাব এইড, ধানমন্ডি
রোগীঃ অচেনা
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ হার্টের সমস্যা
কিভাবে যাওয়া হলোঃ donatebloodbd.com ওয়েবসাইট থেকে নাম্বার নিয়ে ফোন দিয়েছিলো

সারসংক্ষেপঃ ২০১৪ সালে প্রথম নিয়মিত রক্তদান করার জন্য উৎসাহিত হয় সুব্রত দেব ভাইয়ের পোস্ট দেখে। স্বেচ্ছায় রক্তদানে মানুষকে অনুপ্রাণিত করার জন্য উনি বহুদিন ধরে কাজ করে যাচ্ছেন। উনার তৈরি করা ওয়েবসাইট নিজের সব তথ্য দিয়ে রাখি যেন প্রয়োজনের সময় মানুষ ফোন দিতে পারে। সেখান থেকে ফোন পেয়েই রক্তদান করতে যাওয়া।

৩য় রক্তদান

তারিখঃ ০৩ অক্টোবর, ২০১৪ (03.10.2014)
সময়ঃ সন্ধ্যা ৭.৩০
স্থানঃ রেড ক্রিসেন্ট, মোহাম্মদপুর
রোগীঃ অচেনা
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ ক্যান্সার
কিভাবে যাওয়া হলোঃ donatebloodbd.com ওয়েবসাইট থেকে নাম্বার নিয়ে ফোন দিয়েছিলো

৪র্থ রক্তদান

তারিখঃ ০৭ মার্চ, ২০১৫ (07.03.2015)
স্থানঃ শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল, কলেজ গেট
রোগীঃ অচেনা
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ রক্তশূন্যতা
কিভাবে যাওয়া হলোঃ donatebloodbd.com ওয়েবসাইট থেকে নাম্বার নিয়ে ফোন দিয়েছিলো

৫ম রক্তদান

তারিখঃ ২৫ জুলাই, ২০১৫ (25.07.2015)
সময়ঃ রাত ২.৩০
স্থানঃ আদ-দ্বীন হাসপাতাল, মগবাজার
রোগীঃ আশরাফ ভাইয়ের কাজিন
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ গর্ভবতী
কিভাবে যাওয়া হলোঃ আশরাফ ভাই নিয়ে গিয়েছিলো

৬ষ্ঠ রক্তদান

তারিখঃ ২৬ ডিসেম্বর, ২০১৫ (26.12.2015)
সময়ঃ দুপুর ২.১৫
স্থানঃ গ্রীন লাইফ মেডিকেল নার্সিং ইন্সটিটিউট, থ্যালাসেমিয়া হাসপাতাল – গ্রীন রোড
রোগীঃ অচেনা
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ থ্যালাসেমিয়া রোগী
কিভাবে যাওয়া হলোঃ রক্তদানের অপেক্ষায় বাংলাদেশ গ্রুপ থেকে দেখে।

৭ম রক্তদান

তারিখঃ ০৭ মে, ২০১৬ (07.05.2016)
সময়ঃ রাত ৮.১৫
স্থানঃ ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল-২ (নতুন ভবন)
রোগীঃ অচেনা (মধ্য বয়স্ক লোক)
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ কিডনী সমস্যা
কিভাবে যাওয়া হলোঃ ফেসবুক বা ওয়েবসাইট থেকে নাম্বার নিয়ে ফোন কল পেয়ে।

৮ম রক্তদান

তারিখঃ ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ (15.09.2016)
সময়ঃ বিকাল ৪.২০
স্থানঃ কাকরাইল ইসলামী ব্যাংক হাসপাতাল
রোগীঃ অচেনা
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ গর্ভবতী
কিভাবে যাওয়া হলোঃ রক্তদানের অপেক্ষায় বাংলাদেশ গ্রুপের ঈদ স্পেশাল পোস্ট থেকে।

৯ম রক্তদান

তারিখঃ ০৬ জানুয়ারি, ২০১৭ (06.01.2017)
সময়ঃ বিকাল ৪.৫৫
স্থানঃ ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ, কল্যানপুর
রোগীঃ টিংকু ভাইয়ের পরিচিত
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ রক্তশূন্যতা
কিভাবে যাওয়া হলোঃ টিংকু ভাইয়ের মাধ্যমে

১০ম রক্তদান

তারিখঃ ০২ জুলাই, ২০১৭ (02.07.2017)
সময়ঃ আনুমানিক রাত ১০.১০
স্থানঃ ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল-২ (নতুন ভবন)
রোগীঃ অচেনা
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ পা ফুলে গেছিলো। পায়ের অপারেশন হবে।
কিভাবে যাওয়া হলোঃ অপরিচিত মাধ্যম থেকে ফোন পেয়ে

১১তম রক্তদান

তারিখঃ ২১ অক্টোবর, ২০১৭ (21.10.2017)
সময়ঃ আনুমানিক দুপুর ১২.০০
স্থানঃ ট্রমা সেন্টার, মিরপুর রোড(শ্যামলী)
রোগীঃ নানু
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ সিড়ি থেকে পড়ে হাত ভেঙ্গে যাওয়ায় অপারেশনের জন্য।

১২তম রক্তদান

তারিখঃ ১৪ ফেব্রুয়ারি, ২০১৮ (14.02.2018)
সময়ঃ আনুমানিক সকাল ০৯.০০
স্থানঃ প্যান প্যাসিফিক হাসপাতাল, শাজাহানপুর
রোগীঃ মুজাহিদ জুয়েল ভাইয়ের আম্মু
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ ক্যান্সার
কিভাবে যাওয়া হলোঃ ফেসবুক স্ট্যাটাস থেকে দেখে

১৩তম রক্তদান

তারিখঃ ১৭ জুন, ২০১৮ (17.06.2018)
সময়ঃ আনুমানিক দুপুর ০২.০০ (রোযার ঈদের দ্বিতীয় দিন)
স্থানঃ কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন, শান্তিনগর
রোগীঃ অচেনা
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ ব্লাড ক্যান্সার
কিভাবে যাওয়া হলোঃ রক্তদানের অপেক্ষায় বাংলাদেশ ফেসবুক গ্রুপ

১৪তম রক্তদান

তারিখঃ ১৫ অক্টোবর, ২০১৮ (15.10.2018)
সময়ঃ আনুমানিক সন্ধ্যা ০৬.৩০
স্থানঃ কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন, শান্তিনগর
রোগীঃ যার প্রয়োজন হবে দিবে
কিভাবে যাওয়া হলোঃ কোয়ান্টাম থেকে ফোন দিয়েছিলো

১৫তম রক্তদান

তারিখঃ ২১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ (21.02.2019)
সময়ঃ আনুমানিক দুপুর ০২.০০
স্থানঃ কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন, শান্তিনগর
রোগীঃ যার প্রয়োজন হবে দিবে
কিভাবে যাওয়া হলোঃ নিজে থেকেই কোয়ান্টামে গিয়েছিলাম

১৬তম রক্তদান

তারিখঃ ২৮ জুন, ২০১৯ (28.06.2019)
সময়ঃ রাত ৩.৩০টা
স্থানঃ ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল-২ (নতুন ভবন)
রোগীঃ কলেজ বন্ধু রিমনের পরিচিত
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ রক্তচাপ কমে গিয়ে ইন্টারনাল ব্লিডিং শুরু হয় এবং প্রায় ৫/৬ ব্যাগ রক্তের প্রয়োজন হয়
কিভাবে যাওয়া হলোঃ ফেসবুকে রক্তদান করতে ইচ্ছুক পোস্ট দেখে রিমন ফোন দেয়

১৭তম রক্তদান

তারিখঃ ১৪ ডিসেম্বর, ২০১৯ (14.11.2019)
সময়ঃ ~দুপুর ৩.৩০টা
স্থানঃ ঢাকা সেন্ট্রাল ইন্টারন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতাল, শ্যামলী
রোগীঃ অপরিচিত
রক্তের প্রয়োজনের কারনঃ ডায়ালাইসিস
কিভাবে যাওয়া হলোঃ ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে নক পেয়ে

১৮তম রক্তদান

তারিখঃ ৪ মার্চ, ২০২০ (04.03.2020)
সময়ঃ ~দুপুর ১২.২৮
স্থানঃ ট্রমা সেন্টার, শ্যামলী
রোগীঃ আম্মু (BIHS হাসপাতালের খাট থেকে পড়ে ডান হাত ভেঙ্গে ফেলছে)

১৯তম রক্তদান

তারিখঃ ১২ অক্টোবর, ২০২০ (12.10.2020)
সময়ঃ ~সকাল ১১.০০
স্থানঃ পঙ্গু হাসপাতাল, শ্যামলী
রোগীঃ সিএনজি এক্সিডেন্ট করে পা ভেঙ্গে ফেলছে
কিভাবে যাওয়া হলোঃ রক্তদানের অপেক্ষায় গ্রুপ থেকে ফেসবুক ম্যাসেঞ্জারে নক পেয়ে

২০তম রক্তদান

তারিখঃ ২ মার্চ, ২০২১ (02.03.2021)
সময়ঃ ~সকাল ১১.০০
স্থানঃ জাতীয় ক্যান্সার রিসার্চ ইন্সটিটিউট, মহাখালী
রোগীঃ ক্যান্সার রোগী
কিভাবে যাওয়া হলোঃ রক্তদানের কোন গ্রুপ/ওয়েবসাইট থেকে খুঁজে পেয়ে নক করে

১ম প্লাটিলেট দান

তারিখঃ ৫ জুলাই, ২০২১ (05.07.2021)
সময়ঃ ~বিকাল ৫.০০
স্থানঃ নিউ লাইফ হাসপাতাল/থ্যালাসেমিয়া হাসপাতাল, গ্রীন রোড
রোগীঃ ক্যান্সার রোগী (শিশু)
কিভাবে যাওয়া হলোঃ আমার স্ট্যাটাস থেকে দেখে

২য় প্লাটিলেট দান

তারিখঃ ১৬ আগস্ট, ২০২১ (16.08.2021)
সময়ঃ ~বিকাল ৫.০০
স্থানঃ নিউ লাইফ হাসপাতাল/থ্যালাসেমিয়া হাসপাতাল, গ্রীন রোড
রোগীঃ ক্যান্সার রোগী
কিভাবে যাওয়া হলোঃ আগের বার প্লাটিলেট দিতে গিয়ে পেশেন্টের আত্মীয় নাম্বার নিয়েছিলো

আপনার মতামত জানান
SHARE